আমীন আল রশীদ
আমীন আল রশীদ

সাংবাদিক, লেখক, গবেষক। যুগ্ম বার্তা সম্পাদক, চ্যানেল টোয়েন্টিফোর।জন্ম, ০৭ মার্চ, ১৯৮০, ঝালকাঠি।কাজের অভিজ্ঞতাপ্রথম আলো: মার্চ ২০০২-ডিসেম্বর ২০০৫ (ঝালকাঠি জেলা প্রতিনিধি)যায়যায়দিন: এপ্রিল ২০০৬-জুন ২০০৮ (স্টাফ রিপোর্টার)এবিসি রেডিও: জুন ২০০৮-জুন ২০১৪ (সিনিয়র রিপোর্টার/নিউজ ইনচার্জ)বিবিসি: ডিসেম্বর ২০১৩-জুলাই ২০১৪ (ফ্রিল্যান্স রিপোর্টার)চ্যানেল টোয়েন্টিফোর: জুলাই ২০১৪-বর্তমানউল্লেখযোগ্য অ্যাওয়ার্ড:অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় থমসন পুরস্কার, ২০১৩অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় টিআইবি পুরস্কার, ২০১৩অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় দুদক পুরস্কার, ২০১৩প্রকাশিত গ্রন্থ ১১উল্লেখযোগ্য: সরকারি বিরোধী দল, ২০১৪সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনী: আলোচনা তর্ক বিতর্ক, ২০১১মানুষের গল্প: ২০০৮কমিউনিটি রেডিও হ্যান্ডবুক: ২০১৪বাংলাদেশের কমিউনিটি রেডিও, অর্জন ও চ্যালেঞ্জ: ২০১২তথ্য অধিকার ও কমিউনিটি রেডিও: ২০১৪

রাজধানী ঢাকায় আদৌ কোনো গণপরিবহন ব্যবস্থা আছে কি না বা থাকলেও সেখানে কী রকম গণনৈরাজ্য চলে, তা ভূক্তভোগীরা প্রতিদিন টের পান। পকেটে পয়সা থাকলেও আপনি সময়মতো কাঙ্ক্ষিত গন্তব্যে যাওয়ার মতো আরামদায়ক ও নির্ঝঞ্ঝাট বাহন পাবেন, তার কোনো নিশ্চয়তা নেই। আবার বাহন থাকলেও তার ভাড়া নিয়ে যাত্রীদের অসন্তোষের শেষ নেই। তবে এতসব নেই-এর ভেতরে কিছুটা আশার আলো জ্বেলেছিল ব্যক্তিগত গাড়ি ভাড়ায় চালানোর পদ্ধতি ‘উবার’ এবং মোটর সাইকেল সার্ভিস ‘পাঠাও’। কিন্তু নাগরিকদের সবচেয়ে বেশি অভিযোগ যে সিএনজি অটোরিকশার বিরুদ্ধে, তারাই এবার এই পাঠাও উবার বন্ধের দাবি জানিয়ে ধর্মঘটের হুমকি দিয়েছে। এই ইস্যুতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে যেসব প্রতিক্রিয়া আসছে, তা রীতিমতো বিস্ময়কর। অনেকে এরকম কথাও লিখেছেন যে,

By আমীন আল রশীদ on বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০১৭ ২২:০৮

রোববার বিকেলে রাজধানীর সোহরারওয়ার্দী উদ্যানের জনসভায় দেয়া ভাষণে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, ক্ষমতায় এলে তারা আওয়ামী লীগের জুলুম (তার ভাষায়) ক্ষমা করে দেবেন। এর আগে বেগম জিয়া আদালতেও বলেছেন যে, তিনি শেখ হাসিনাকে ক্ষমা করে দিয়েছেন। প্রথম প্রশ্ন হলো, কে কাকে ক্ষমা করে? আওয়ামী লীগ কি বিএনপির কাছে ক্ষমা চেয়েছে? দ্বিতীয় প্রশ্ন, বিএনপি নেত্রী কি নিশ্চিত যে তারাই আগামীতে ক্ষমতায় আসছেন? নাকি তাদের কাছে এরকম কোনো ঐশী বাণী পৌঁছে গেছে যে, তাদের দাবি অনুযায়ী নির্দলীয় সরকারের অধীনে একটি অবাধ সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হবে এবং তারা ক্ষমতায় যাবে? ২০০৮-এর নির্বাচনের সময় আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা তার দলের কিছু নেতার কিছু ‘বিতর্কিত’ কর্মকাণ্ড (বিশেষ করে সেনা নিয়ন্ত্রি

By আমীন আল রশীদ on সোমবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৭ ২১:৫৯

আমাদের বিচার বিভাগ কতটা স্বাধীন বা সংবিধান তাদের কতটা ক্ষমতা দিয়েছে এরকম প্রশ্নে স্বাধীনতার প্রশ্নটি বারবারই প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে এবং বিচারকরা আসলেই কতটা স্বাধীনভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারেন বা পারছেন, তা নিয়ে নানা সময়েই বিতর্ক হয়েছে। সংবিধানের যে সংশোধনী নিয়ে এখন তুমুল আলোচনা হচ্ছে সেই ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়েও বলা হয়েছে, ‘The independence of the judiciary is the foundation stone of the constitution and as contemplated by article 22, it is one of the fundamental principles of State policy.’ আইনের শাসন প্রসঙ্গ এলেও আমাদের দেখতে হয় এর সাথে বিচার বিভাগের কী সম্পর্ক? আর বিচার বিভাগের স্বাধীনতার প্রসঙ্গ এলে আমাদের অনিবার্যভাবে যে প্রশ্নটির অবতারণা করতে হয় তা হলো, আমাদের সংবিধানে বিচার বিভাগের অবস্থান কোথায় বা সাংবিধানিকভাবে বিচার বিভাগের এখতিয়ার কতটুকু? সেই সাথে এই আলোচনাটিও অনেক

By আমীন আল রশীদ on মঙ্গলবার, ০৭ নভেম্বর ২০১৭ ০৮:৩১

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ভর্তি পরীক্ষার একটি প্রশ্ন নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তোলপাড় শুরু হয়েছে। এর রেশ না কাটতেই উত্তরের আরেক জেলা নীলফামারী সদর উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মডেল টেস্টের একটি প্রশ্ন নিয়েও বিতর্ক তৈরি হয়েছে। ২৫ অক্টোবর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ভর্তি পরীক্ষায় একটি প্রশ্ন ছিল: পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ গ্রন্থের নাম কী? (ক) পবিত্র কুরআন শরীফ (খ) পবিত্র বাইবেল (গ) পবিত্র ইঞ্জিল (ঘ) গীতা। এরপর নীলফামারী সদর উপজেলার পঞ্চম শ্রেণির মডেল টেস্টে ইসলাম ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা বিষয়ে একটি প্রশ্ন ছিল: তোমার পাড়ার একজন লোক মারা গিয়েছে। তোমরা তাকে অবশ্যই সবাই মিলে তাকে কবরে দাফন করলে। সে কোথায় যাবে? (ক) জাহান্নাম, (খ) দোযখ, (গ) নরক, (ঘ) বৃন্দাবন। ধর্মীয় বিষয়ের প্

By আমীন আল রশীদ on শনিবার, ২৮ অক্টোবর ২০১৭ ২১:১১

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের বরাত দিয়ে সম্প্রতি গণমাধ্যমের একটি খবরে বলা হয়েছে, রোহিঙ্গাদের বিপন্নতায় সু চি মর্মাহত, তিনি ভেঙে পড়েছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তার এক উপদেষ্টার বরাতে ওই সংবাদটি পড়ে অনেকেই হেসে ফেলতে পারেন বা মনে হতে পারে যে, ‘শান্তির দূত’ বোধ হয় কেবলই জানলেন যে, রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের ওপর গণহত্যা চলছে। ১৮ অক্টোবর রোহিঙ্গা বিষয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলীও অং সান সু চি একজন সংবেদনশীল মানুষ বলে অভিহিত করেন। বলেন, তিনি সারাজীবন সামরিকতন্ত্রের বিরোধিতা করেছেন। যদিও এরপরে আল জাজিরা টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে শান্তিতে নোবেলজয়ী বাংলাদেশি ড. মুহাম্মদ ইউনূস রাখাইনের রোহিঙ্গা সংকটের জন্য সু চিকেই দায়ী করেন। তিনি বলেন, সু চি যদি রাখাইনে রোহিঙ

By আমীন আল রশীদ on রবিবার , ২২ অক্টোবর ২০১৭ ১৪:১২

বিচারপতিদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাত থেকে পুনরায় সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলে ন্যস্ত করার পর এর প্রথম ‘ভিকটিম’ প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা নিজেই হবেন কি না, তা এখন একটি বড় প্রশ্ন। কেননা তার বিরুদ্ধে নৈতিক স্খলনসহ ১১টি অভিযোগ রয়েছে বলে খোদ সুপ্রিম কোর্টের বিবৃতিতে জানানো হয়েছে। সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের পর ৯৬ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী কোনো বিচারকের বিরুদ্ধে অসদাচরণের তদন্ত করবে সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল যে ক্ষমতা আগে ছিল সংসদের হাতে। এখন প্রশ্ন আরও একটি থাকছে, যেহেতু ষোড়শ সংশোধনীর রায় সংসদ মানেনি এবং এই রায়ের রিভিউয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার, তাই সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল কি পুনর্বহাল হয়েছে নাকি রিভিউয়ের রায়ের আগ পর্যন্ত বিচারকদের অপসারণ বা তাদের বিরুদ্ধে তদ

By আমীন আল রশীদ on রবিবার , ১৫ অক্টোবর ২০১৭ ১৭:৫২

বলা হয়, দুটি যুদ্ধের মধ্যবর্তী সময়কালই হচ্ছে ‘শান্তি’। যেমন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে এই গ্রহবাসী এখন অবধি কোন টোটাল ওয়ার বা সর্বাত্মক যুদ্ধের মুখে পড়েনি। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার দুই উন্মাদের কারণে যদি সত্যি সত্যি আবার একটা বড় ধরনের যুদ্ধ লেগে যায় এবং সেখানে বিশ্বের বড় শক্তি গুলোও জড়িয়ে যায়, তখন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পরবর্তী এই সময়কালকে বলা হবে ‘শান্তির যুগ’। তবে এই শান্তি স্থাপন বা অব্যাহত রাখা তথা যুদ্ধের মতো মানববিধ্বংসী পরিস্থিতি এড়াতে পারমাণবিক অস্ত্রের যে একটা পরোক্ষ ভূমিকা আছে– সে কথা অনেকের কাছে উদ্ভট মনে হতে পারে। সে প্রসঙ্গে যাওয়ার আগে শান্তিতে নোবেল নিয়ে একটু বলা যাক। এবার এই সম্মানজনক এবং অনেক সময়ই বিতর্কিত পুরস্কারটি পেয়েছে আন্তর্জাতিক পারমাণবিক অস্ত্র

By আমীন আল রশীদ on শুক্রবার, ০৬ অক্টোবর ২০১৭ ২৩:২১

ঢাকা শহরে প্রতিদিন ব্যক্তিগত বা গণপরিবহনে যারা চলাচল করেন, বিশেষ করে যাদের কর্মস্থল ও বাসার দূরত্ব অনেক– তাদের কাছে এই শহর বস্তুত এক নরক। ঘণ্টার পর ঘণ্টা রাস্তায় বসে থাকা, গরমে ঘামে অস্থির হওয়া, অব্যাহত হর্নে বিরক্ত হওয়া এবং ধীরে ধীরে জীবনীশক্তি ক্ষয় হওয়া মানুষের সংখ্যা অগণিত। অনেকেই ভাবেন এই শহরটা ছেড়ে যেতে পারলেই বাঁচা যায়। প্রায় দুই কোটি কিংবা তারও চেয়ে বেশি মানুষের ভারে ন্যূব্জ পৃথিবীর অন্যতম বৃহৎ এই মহানগরী নিজেও হাঁফ ছেড়ে বাঁচে যখন দুই ঈদে অর্ধেকের মতো মানুষ এই শহর ছেড়ে চলে যায়। এক অন্যরকম ঢাকা আবিষ্কার করেন এখানে থেকে যাওয়া মানুষেরা। তখন তারা ভাবেন, সারা বছর এমন থাকলে কতই না ভালো হতো! কিন্তু তা তো হবার নয়। সবাই ঢাকামুখী। বছরের পর বছর ধরে ঢাকাকে বিকেন্দ্রীকরণের কথা বলা হ

By আমীন আল রশীদ on বৃহস্পতিবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ১৪:৫৭

দৈনিক সকালের খবর পত্রিকার অফিসটি আমাদের অফিস লাগোয়া। ফলে ওই পত্রিকার কর্মী এবং আমরা ফুটপাথের একই দোকানে চা খেতাম। সাংবাদিক নেতা হেলাল ভাইয়ের সাথে ইয়ার্কি-মশকরা হতো। বস্তুত সকালের খবরের কয়েকজন রিপোর্টার আমাদের চায়ের আড্ডাকে প্রাণবন্ত করে রাখতেন। সেই মানুষগুলো এখন বেকার। চাকরি না পেলে আগামী মাস থেকে অনেককেই হয়তো বাকিতে চা খেতে হবে। আগামী মাস থেকেই তারা আর আমাদের সাথে এই ফুটপাথে একসঙ্গে চা খাবেন না। এটা মেনে নেয়া খুব কঠিন। বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) হঠাৎ করেই সংবাদটি আসে যে, সকালের খবর পত্রিকাটি বন্ধ হয়ে গেছে। প্রতিষ্ঠানে সাংবাদিকসহ কর্মীর সংখ্যা তিনশোর বেশি। এর কিছুদিন আগে বন্ধ হয়ে গেছে অনলাইন নিউজ পোর্টাল যমুনা নিউজ। দেশের গণমাধ্যমের এই সংকট নতুন কিছু নয়। সম্প্রতি একটি টেলিভিশন চ

By আমীন আল রশীদ on শুক্রবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ১৬:৫২

স্বপ্ন দেখা সহজ। কিন্তু দেখানো কঠিন। সরাসরি রাজনীতিবিদ না হয়েও যিনি একটি নতুন ঢাকার স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন নাগরিকদের, তিনি এখন গভীর ঘুমে। অনেকদিন ধরেই নিশ্চুপ। চিকিৎসাবিজ্ঞানের ভাষায় তার অবস্থা এখনও স্থিতিশীল। আশা করা হচ্ছে, তিনি ধীরে ধীরে জেগে উঠবেন, ওষুধে সাড়া দেবেন। এ এক অদ্ভুত অসুখ। মস্তিষ্কের রক্তনালীর প্রদাহ বা সেরিব্রাল ভাসকুলাইটিসে আক্রান্ত হয়ে ১৩ আগস্ট থেকে লন্ডনের একটি হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র আনিসুল হক। শুভাকাঙ্ক্ষীরা প্রতিদিনই তার ফিরে আসার প্রত্যাশা জানিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিচ্ছেন। প্রার্থনা করছেন। মানুষকে স্বপ্ন দেখানো এই মানুষটি নিজেই এখন এক গভীর স্বপ্নের জগতে। গত বছরের মে মাসে ব্র্যান্ড ফোরামের আয়োজনে নর্থসাউথ ইউনিভার্

By আমীন আল রশীদ on বৃহস্পতিবার, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ১৯:৪৪