বৈশ্বিক তাপমাত্রা আর জলবায়ুর পরিবর্তন নিয়ে এই যে এতো চিন্তা আর আলোচনা, তার কিছুটা হয়তো কমে যেতে পারে ২০৫০ সালের পরে। নতুন এক গবেষণায় বলা হয়েছে, ২০৫০ সাল নাগাদ সূর্যের উত্তাপ কমে যেতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রের সানডিয়াগোর ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা সম্প্রতি এক গবেষণার ফলাফলে এ তথ্য জানিয়েছেন।

সম্প্রতি সোলার সাইকেলের শীতল হতে থাকা অংশের ওপর ভিত্তি করে বিজ্ঞানীরা ধারণা করছেন, কয়েক দশক পর সূর্য প্রায় ৭ শতাংশ শীতল হবে। ‘গ্রান্ড মিনিমাম’ পরিস্থিতিতে আসতে আর মাত্র কয়েক দশক সময় লাগতে পারে। গ্রান্ড মিনিমাম হচ্ছে অত্যন্ত নিম্নমাত্রার সৌর গতিবিধি যা পৃথিবীর তাপমাত্রা হ্রাস করে।

ওইসময়ে নিম্ন-তাপমাত্রার কারণে পৃথিবীতে জলবায়ু ও প্রাণিজগতের উপরে কী ধরণের প্রভাব পড়বে, তা নিয়ে ভাবতে শুরু করেছেন বিজ্ঞানীরা।

প্রায় ৩০০ বছর আগে এধরণের নিম্ন-তাপমাত্রায় চলে এসেছিল সূর্যের উত্তাপ। ১৬৪৫ থেকে ১৭১৫ সাল পর্যন্ত ওই অবস্থায় ছিল সূর্য। ‘মুন্দার মিনিমাম’ নামে ওই গ্রান্ড মিনিমামের কারণে পৃথিবীর তাপমাত্রা অনেক কমে এসেছিল। ওইসময়কে অনেকে ‘লিটিল আইস এজ’ নামেও উল্লেখ করে থাকেন। ওইসময় টেমস নদীসহ ইউরোপের অনেক জলাঞ্চল জমে গিয়েছিল বলে বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত্বে জানা যায়।

লিটিল আইস এজের প্রভাবের শিল্পচিত্র

গত কয়েক দশক ধরে সূর্যের উত্তাপ অত্যাধিক বেড়ে যাবার কারণে বিশ্বজুড়ে জলবায়ুর পরিবর্তন সংক্রান্ত নানা সমস্যা দেখা যাচ্ছে। দ্য ন্যাশনাল ওসেনিক অ্যান্ড এটমস্ফিয়ার অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (নোয়া) এর তথ্যমতে ১৮৮০ সালের পর থেকে ২০১৭ সাল ছিল তৃতীয় সর্ব্বোচ তাপমাত্রার বছর।