‘১৯৪৫ সালে প্রথম চলচ্চিত্র দেখি। নাম মনে নেই। শুধু এটুকু মনে আছে সম্রাট বাবরকে কেন্দ্র করে চলচ্চিত্রটি হয়েছিল। আমার দাদার জায়গায় দুটো সিনেমা হল হয়েছিল। ফলে শৈশব-কৈশোরে সিনেমা দেখা একটা অভ্যাস হয়ে দাড়িয়েছিল।’

শীত সন্ধ্যায় রাজধানীর জাদুঘর মূল মিলনায়তনে ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের ১৬ তম আসরে স্মৃতির সংক্ষিপ্ত কিন্তু মনমাতানো পসরা খুলেছিলেন যেন আবুল মাল আবদুল মুহিত। উৎসবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি প্রধান অতিথি ছিলেন। তার বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, ‘দ্বিতীয় ছবি ছিল ‘টারজান’। এখনও মাঝে মাঝে আমি টারজান দেখি।’

তার বক্তব্যে উঠে আসে চলচ্চিত্র নিয়ে তার ভাবনা এবং প্রয়াত তারেক মাসুদের কথা। ২০০৯-১০ সাল থেকে সিনেমার দিন ফেরানোর জন্য আমার দিক থেকে যথাসাধ্য করার চেষ্টা করছি। একটাসময়তো চলচ্চিত্র প্রায় মরেই গিয়েছিল। তারেক মাসুদের পরামর্শ এখনও আমি মেনে চলার চেষ্টা করি। তিনি এখন আর নেই। সিনেপ্লেক্স এর পরামর্শ তার কাছ থেকে পেয়েছি। আরো অনেক কিছু তিনি বলেছেন। তখন মনে হয়েছিল এদেশে সিনেপ্লেক্স চলবেনা। কিন্তু এখন সিনেপ্লেক্স মানুষ খাবে বলে বিশ্বাস করি। বেশ কিছুতো হচ্ছে।’

প্রধান অতিথির বক্তব্যে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর উৎসব কেন্দ্রিক ট্রাস্টি বোর্ড গঠনের দাবীর প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, চলচ্চিত্রের উন্নতির জন্য যে কোন যৌক্তিক দাবী পূরণে সচেষ্ট থাকব।