ঠান্ডাজনিত সমস্যা ও ইনফ্লুয়েঞ্জা থেকে মুক্তি দিতে পারে ভিটামিন ডি। বিশেষ করে শীতকাল ও শরৎকালে সম্পূরক হিসেবে এই ভিটামিন ডি সেবন করা যেতে পারে  বলে জানিয়েছেন যুক্তরাজ্যের একদল গবেষক। তারা বলছেন, হাঁড়ের বৃদ্ধি ও উন্নয়নের পাশাপাশি রোগ প্রতিরোধেও এটি ভূমিকা পালন করে থাকে।

ব্রিটিশ মেডিকেল জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ মতপ্রকাশ করে বলা হয়েছে, খাদ্যদ্রব্যে এই ভিটামিন যুক্ত করা উচিত। মাংসপেশি ও হাড়ের স্বাস্থ্যের উন্নতির জন্য এটা গ্রহণ করা প্রযোজন। তবে, পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ড (পিএইচই) বলছে এই তথ্য এখনই চুড়ান্ত নয়।

কুইন মেরি ইউনিভার্সিটি অব লন্ডনের গবেষক দল শ্বাসনালির সংক্রমণজনিত রোগের বিষয়ে ভিটামিন ডি-এর কার্যকারিতা কতটুকু, সে বিষয়ে গুরুত্ব দিয়েছেন। সার্বিকভাবে গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সম্পূরক হিসেবে ভিটামিন ডি সেবন করা ৩৩ জনের মধ্যে একজন সংক্রমণজনিত সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন। এটা ফ্লু-এর টিকা থেকে বেশি কার্যকর। টিকায় প্রতি ৪০ জনের মধ্যে একজনের ক্ষেত্রে কার্যকর ফল পাওয়া যায়।

গবেষণা দলের অন্যতম গবেষক প্রফেসর আদ্রিয়ান মার্টিন্যু বলেন, যুক্তরাজ্যের ৬ কোটি ৫০ লাখ লোকের মধ্যে প্রতিবছর ৭০ শতাংশ শ্বাসনালির সংক্রমণজনিত কোনো না কোনো সমস্যায় ভুগে থাকে। প্রতিদিন বা সপ্তাহে সম্পূরক হিসেবে ভিটামিন ডি সেবনের মাধ্যমে ৩২ লাখের বেশি মানুষ এই রোগ থেকে মুক্তি পেতে পারে।